মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

স্বাস্থা সেবার তালিকা

১ । পরিবার পরিকল্পনা সেবা  ।

২ । শিশু ০-৫ বছর বয়সের শিশু সেবা

৩ । গর্ভবতী মায়েদের সেবা

৪ । প্রসূতী মায়েদের সেবা

৫ । প্রজনন স্বাস্থ্য সেবা

৬ । টিকা দান কর্মসূচী

৭ । সাধারন রোগী সেবা

৮ । স্বাস্থ্য শিক্ষা সেবা

উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আগত নারী-পুরম্নষ, বৃদ্ধ-যুব-শিশু সকলকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করা হয়।

* ডায়রিয়া রোগীদের জন্য ওআরএস সরবরাহ করা হয়।

* হাসপাতালে আগত প্রসূতি রোগীদের এন্টিনেটাল চেকআপসহ প্রয়োজনীয় উপদেশ দেয়া হয় এবং

আয়রন ট্যাবলেট সরবরাহ করা হয়।

* জাতীয় যক্ষ্মা ও কুষ্ঠ নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের আওতায় যক্ষ্মা রোগীদের কফ পরীÿার জন্য কফ কালেকশন

করা হয় এবং যক্ষ্মা কুষ্ঠ রোগীদের বিনামূল্যে ঔষধ সরবরাহ কর হয়।

* শিশু ও মহিলাদের ইপিআই কার্যক্রমের আওতায় পতিষেধক টিকা দেয়া হয়

* উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আগত রোগীদের স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও প্রজনন স্বাস্থ্য শিÿা দেয়া হয়

*উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আগত কিশোর-কিশোরী ও সÿম দম্পতিদের মধ্যে প্রজনন স্বাস্থ্য ও পরিবার

পরিকল্পনা কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

* প্রয়োজনে রোগীকে উপজেলা হাসপাতালে রেফার করা হয়

* আগত রোগী ও তাঁদের আত্মীয়-স্বজনগণ স্বাস্থ্য সেবা সম্পর্কে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও উপদেশের জন্য

সংশ্লিট চিকিৎসকগণের সাথে সহজেই যোগাযোগ করতে পারেন।

* উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রয়োজনীয় সংখ্যক নোটিশ বোর্ড সবার দৃষ্টিগোচর হয় এমন জায়গায় স্থাপিত আছে।

নোটিশ বোর্ডে প্রয়োজনীয় তথ্য লিপিবদ্ধ আছে।

* সরবরাহ সাপেক্ষে ঔষধ সমূহ সেবাকেন্দ্র হতে বিনা মূল্যে প্রদান করা হয়। তবে চিকিৎসার প্রয়োজনে

কোন কোন ঔষধ কেন্দ্রের বাহির হতে সেবা গ্রহীতাকে ক্রয় করতে হতে পারে।

* বোর্ডে মজুদ ঔষধের তালিকা, প্রাদনকৃত সেবাসমূহের তালিকা, সেবা প্রদানকারী চিকিৎসকের তালিকা

টানানো আছে।

* সেবা গ্রহীতার কর্তৃব্য-

সেবা প্রদানকারীগণ সেবা গ্রহীতার নিকট হতে সৌজন্য মূলক আচরণ প্রাপ্তির অধিকার রাখে

  

1. গর্ভকালীন যত্ন

      গর্ভকালীন সময়ে মায়ের চাই বিশেষ যত্ন। মহিলাদের গর্ভধারনের পূর্বেই নিজের স্বাস্থ্য, গর্ভধারণ ও সন্তান পালন সংক্রান্ত বিষয়ে সচেতন হওয়া দরকার। কারণ একজন সুস্থ্য মা-ই পারে একটি সু্স্থ ও স্বাভাবিক শিশুর জন্ম দিতে। তাই গর্ভবতী মায়ের জন্য প্রয়োজন সঠিক যত্ন ও পরিচর্যা। গর্ভকালীন যত্ন বাংলাদেশে মাতৃমৃত্যুর হার কমাতে বিশেষ ভাবে সাহায্য … [বাকিটুকু পড়ুন]
   2. প্রসঙ্গ : মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়ন

      বিশ্বব্যাপী মানসিক রোগীর সংখ্যা বর্তমানে প্রায় ৪৫ কোটি। এই সংখ্যা থেকে বলা যায়, মানসিক স্বাস্থ্যের গুরুত্ব আজ আর নতুন করে ব্যাখ্যা করার প্রয়োজন নেই। মানসিক স্বাস্থ্যকে বিশ্বব্যাপী প্রাধান্য দেবার প্রচেষ্টা শুরু হয়েছিল অনেক পূর্বে । সেই ধারাবাহিকতায় এ বছর ‘ওয়ার্ল্ড ফেডারেশন অব মেন্টাল হেলথ’ বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ … [বাকিটুকু পড়ুন]
   3. শরীর বিষমুক্ত করার অনন্য উপায়

      ড. জেফরি মরিসনের একটি বড় পরিচয় হল তিনি নিউইয়র্কের মরিসন সেন্টারটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। আর অন্য পরিচয় হল তিনি আমেরিকান অ্যাকাডেমি ফর দ্য অ্যাডভান্সমেন্ট অব মেডিসিন বা এসিএএম-এর বোর্ডের একজন পরিচালক। প্রতিষ্ঠানটি আগে আমেরিকান অ্যাকাডেমি অব মেডিকেল প্রিভেনটিকস্‌ নামে পরিচিত ছিল। চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারীদের কাছে ড. মরিসন শরীর বিষমুক্ত করার … [বাকিটুকু পড়ুন]
   4. স্বাস্থ্য সেবায় রোগীদের কাছ থেকে কর আদায়কে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট

      স্বাস্থ্য সেবা খাতে রোগীদের কাছে বিভিন্ন পরীক্ষায় সময় সরকারি কর (ভ্যাট) আদায়কে সংবিধান পরিপন্থী, বে-আইনী ও নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক ও বিচারপতি মো· মমতাজ উদ্দিন সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ শুনানি শেষে এ রায় দেন।
      চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য সেবার ক্ষেত্রে কর আদায়ের উদ্দেশ্যে ১৯৯১ সালের … [বাকিটুকু পড়ুন]

 

ছবি

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)




Share with :

Facebook Twitter